An Open Letter to myself by Arghya Roychowdhury

[gtramslate]

নিভন্ত জোনাক 

আঁধার প্রবাসী, 

নিজের ভেতরে তাকালে কিছু অন্ধকার চোখে পড়ে,

ফেলে আসা পথ, কুয়াশায় ঘেরা এক বাড়ি

এক আবহমানের পথে এতটা জীবন কাটিয়ে দেখি সঞ্চয় করিনি কিছুই, ঝরা পালকের গান, বহু ট্রেন চলে গেছে সুদূরের পথে

এসব আঁধার থেকে মধ্যরাত্রি এসে খুলে বসে অপঠিত বই, নিজেকেই দেখি, ভ্রমিত জীবন এক, পেছনে হারিয়ে গেছে বহুতর ডাকের মিছিল, শরীরে জমেছে পলি, ধূসর এক চাঁদের প্রহর, আসন বিছিয়ে রাখে মাথার ভিতর

আত্মহনন লিখি পাতায় পাতায়, রক্তের দাগ, নির্ঘুম বালিশের প্রহেলিকা পার করে দেখি এক জেগে থাকা খাদ, পিয়ানোর সুর ভেসে আসে, এগোই আরোই, চোরাবালি ডেকে যায় অন্ধকারের এক বনের ভেতর। তুমিও ঘুড়ির মতো বহুদূর বহু বহু দূরে, অশ্বশকট এক আসে, মুখ ঢাকা কোচোয়ান ইশারায় কাছে ডেকে নেয়, উঠে বসি। 

অজানা শহরে আমি বহুকাল নিজেকে দেখেছি, দরজা বন্ধ কিছু ঘর, নতমুখে আঁকিবুকি কাটছে জীবন। ধু ধু এক পথ, চোখের ভিতরে মরা নদী, নিভে যাওয়া আলোর আকাশ।

                                              চন্দ্রতাড়িত।

Arghya RoyChowdhury
 অর্ঘ্য রায়চৌধুরীর জন্ম ১৯৭৬ সালে। কলকাতা নিবাসী,কলকাতা এবং যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি লিটল ম্যাগাজিনে লেখালেখি শুরু করেন। একটি কবিতার বই প্রকাশিত হয়েছে,নাম - "বৃষ্টিপাতের রাতগুলো।" কবিতার পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের গদ্যও লিখে থাকেন। যদিও কবিতাই তার বিশেষ ভালোলাগার জায়গা। 

©All Rights Reserved by Torkito Tarjoni

Leave a Reply

Your email address will not be published.